✪➤ বালির সূক্ষ্মতা গুণাংক বলতে কি বুঝায়? নিম্নের তথ্যাদি হতে ৫০০ গ্রাম বালির সূক্ষ্মতার গুণাংক (F.M) নির্ণয় করুন।

চালুনি নং ১৬ ৩০ ৫০ ১০০
অবশেষ (গ্রাম) ২৫ ৫০ ২০০ ১১০ ৬০

উত্তরঃ

বালির সূক্ষ্মতা গুণাংকঃ বালির সূক্ষ্মতা গুণাংক মূলত বস্তুর আকার সম্পর্কে ধারনা দেয়। বস্তুর আকার যত ছোট হয়, এ গুণাংকের মান তত কম হয় এবং বস্তুর আকার যত বড় হয়, এ গূনাংকের মান তত বেশি হয়।  উপরে বড় ছিদ্রের ক্রমান্বয়ে ছোট ছিদ্রের ব্রিটিশ প্রমাণ সাইজের ৩ ইঞ্চি, ১.৫ ইঞ্চি, ০.৭৫ ইঞ্চি, ৪ নং, ৮ নং , ১৬ নং, ৩০ নং, ৫০ নং ও ১০০ নং চালুনিগুলো সাজিয়ে বালি চাললে সকল চালুনির অবশেষের পুঞ্জিভূভ শতকরা হারের সমষ্টিকে ১০০ দিয়ে ভাগ করলে বালির সূক্ষ্মতা গুণাংক (F.M) পাওয়া যায়।

Fineness Modulus (F.M) নির্ণয়ঃ 

নমুনার ওজন = ৫০০ গ্রাম

চালুনি নং অবশেষ (গ্রাম) পুঞ্জীভূত অবশেষ (গ্রাম) % পুঞ্জীভূত অবশেষ সূক্ষ্মতা গুণাংক
 

=  2.47

২৫ ৩০
১৬ ৫০ ৮০ ১৬
৩০ ২০০ ২৮০ ৫৬
৫০ ১১০ ৩৯০ ৭৮
১০০ ৬০ ৪৫০ ৯০
মোট = ২৪৭

কিভাবে নির্ণয় করতে হয়?

১. প্রথমে প্রতিটি চালুনির পুঞ্জীভূত অবশেষ হিসাব করতে হবে উক্ত চালুনির অবশেষ থেকে উপরের সবগুলো চালুনির যোগ করে। যেমনঃ উপরের ছকে ১৬ নং চালুনির পুঞ্জীভূত অবশেষ = ৫০ + ২৫ + ৫ = ৮০

২. তারপর শতকরা পুঞ্জীভূত অবশেষ হিসাব করতে হবে পুঞ্জীভূত অবশেষ কে নমুনার মোট ওজন দিয়ে ভাগ করে এবং ১০০ দিয়ে গুণ দিয়ে। যেমনঃ উপরের ছকে ৩০ নং চালুনির % পুঞ্জীভূত অবশেষ =   × 100 = 56

৩. তারপর শুধু সবগুলো % পুঞ্জীভূত অবশেষ যোগ করে ১০০ দিয়ে ভাগ করলেই বালির সূক্ষ্মতা গুণাংক পাওয়া যাবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *